মতলব উত্তরে লিজকৃত জলাশয়ের কোটি টাকার মাছ জোর করে ধরে নেয়ার অভিযোগ

মতলব উত্তরে লিজকৃত জলাশয়ের কোটি টাকার মাছ জোর করে ধরে নেয়ার অভিযোগ

মতলব উত্তরে  লিজকৃত সরকারি খাস জলাশয় থেকে জোর করে কয়েক কোটি টাকার মাছ ধরে নেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে এক প্রভাবশালী নেতার বিরুদ্ধে। এ ঘটনার প্রতিকার চেয়ে অভিযোগ করেছেন উপজেলার সুলতানাবাদ ইউনিয়নের আমুয়াকান্দা গ্রামের নজরুল ইসলাম পাটোয়ারীর ছেলে লিজকৃত মালিক আব্দুল্লা মোহাম্মদ ইশা পাটোয়ারী ।

মতলব উত্তরে লিজকৃত জলাশয়ের কোটি টাকার  মাছ জোর করে ধরে নেয়ার অভিযোগ


অভিযোগকারী আব্দুল্লা মোহাম্মদ ইশা পাটোয়ারী  জানান, আমুয়াকান্দা মৌজার আমুয়াকান্দা-চরমাছুয়া খাল জলাশয়, যার আরএস নং-৪৩৬, ৪৩৩, ৪৬০, ৩০৪, ৩৩৫,২০১, ১৫২,  ১১৫, এবং চরমাছুয়া মৌজার ১০৬ যার খতিয়ান নং ১, জমির পরিমান- ৪৬.৬১ একর। গত ৭ জুলাই ২০১৬ সালে আমি ৫ বছরের জন্য লিজ নেই। যার মেয়াদ শেষ হবে ৭ জুলাই ২০২১  সালে।  আমি  মৎসজীবী সমবায় সমিতির মাধ্যমে ইজারা নিয়ে মাছ চাষ করে আসছি। উক্ত জলাশয়ে মাছ চাষের লক্ষে গত ২০১৬ সালের রুই, কাতলসহ দেশীয় প্রজাতির বিভিন্ন প্রজাতির মাছ ছাড়া হয়। বর্তমানে প্রতিটি মাছের ওজন প্রায় ৫ থেকে ৭ কেজি হবে। জলাশয়ের মাছের আনুমানিক মূল্য প্রায় ১০ কোটি টাকা। আমি লোকজন দিয়ে এসব কাজ পরিচালনা করি। আমি ঢাকা থাকা অবস্থায়  হঠাৎ করে কয়েকদিন যাবৎ আমার আপন চাচা আমিরুল ইসলাম খোকা পাটোয়ারী  ৫০/৬০ জন দলবল নিয়ে জোর করে দিনে রাতে জলাশয় থেকে প্রায় কয়েক কোটি টাকার মাছ  ধরে নিয়ে যায়। 

সরেজমিনে স্থানীয় লোকদের সাথে কথা হলে তারা জানান, ইশা পাটোয়ারী লিজ নিয়ে রুই, কাতলসহ বিভিন্ন জাতের দেশি মাছ চাষ করেছে। মাছ খুব বড় বড় হয়েছে।  ইশা পাটোয়ারী বাড়িতে না থাকা অবস্থায় তার চাচা খোকা পাটোয়ারী গত কয়েকদিন যাবত দিনে ও রাতে লোকজন নিয়ে মাছ ধরে নিয়ে গেছে। তবে কেন তিনি মাছ ধরে নিয়ে গেছে তা আমরা জানি না।


Newer Posts Older Posts

Related posts